হাইদ চকিয়া মৈত্রী সংঘের বর্ষবরণ উৎসব অনুষ্ঠিত

ফটিকছড়ি হাইদচকিয়াস্থ ১৪২৫ বাংলা নববর্ষ উপলক্ষে ২ দিনব্যাপী চৈত্র সংক্রান্তী ও বর্ষবরণ অনুষ্ঠান হাইদ চকিয়া মৈত্রী সংঘের সভাপতি বিপ্লব বড়–য়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৬নং পাইন্দং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ.কে.এম. সরোয়ার হোসেন (স্বপন)। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হাইদ চকিয়া গৌতমাশ্রম বিহার পরিচালনা কমিটির সভাপতি প্রকৌশলী প্রবেশ বড়–য়া (রাশু), হাইদ চকিয়া গৌতমাশ্রম বিহার পরিচালনা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি অঞ্জন বড়–য়া, ফটিকছড়ি পৌরসভার প্যানেল মেয়র কাউন্সিলর গোলাপর রহমান গোলাপ। বর্ষবরণ উৎসবের উপদেষ্টা পরিষদের বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৬নং পাইন্দং ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান গৌতম সেবক বড়–য়া, ধর্মপাল বড়–য়া জাপান, সূর্যগিরি আশ্রমের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ বিশিষ্ট মরমী গবেষক লায়ন ডাঃ বরুণ কুমার আচার্য বলাই, রজত বড়–য়া, সৈকত বড়–য়া, লিটন বড়–য়া, স্বদেশ বড়–য়া, স্বপন বড়–য়া রুনু, সত্যজিৎ বড়–য়া, বীরসেন বড়–য়া, অনুপম বড়–য়া, দিপক বড়–য়া, কান্টু বড়–য়া, পণ্ডিত তরুণ কুমার আচার্য কৃষ্ণ, মোজাম্মেল হোসেন মানিক, হাইদ চকিয়া মৈত্রী সংঘের সাধারণ সম্পাদক বনতোষ বড়–য়া (শিবু), বর্ষবরণ উদযাপন পরিষদের আহবায়ক সনজীব কুমার বড়–য়া (তিনু), অর্চনা রাণী আচার্য, ৭১বাংলা টিভির প্রতিনিধি সাংবাদিক আলমগীর নিশান, সিপ্লাস টিভির প্রতিনিধি সাংবাদিক মোহাম্মদ সেলিম, এসএনএন এর প্রতিনিধি সাংবাদিক এম.টি সুজন, সাংবাদিক সমীর কান্তি দাশ, বিজন শীল, ঝন্টু শীল, রুবেল শীল, বাবুল নাথ, রূপক বড়–য়া, পংকজ বড়–য়া, লিটন বড়–য়া, সৈকত বড়–য়া, রনজয় বড়–য়া, শান্ত বড়–য়া, সৈজত বড়–য়া, বিটন বড়–য়া, নান্টু বড়–য়া, নয়ন বড়–য়া, প্রদীপ বড়ুয়া, রাসের বড়–য়া, রাহুল বড়–য়া, সুপন বড়–য়া, সলিল বড়–য়া, রীতেশ বড়–য়া, বাঁধন বড়–য়া, অভি বড়–য়া, অয়ন বড়–য়া প্রমূখ। সমগ্র অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন প্রবন বড়–য়া পঙ্কজ ও নান্টু বড়–য়া। অনুষ্ঠান সূচির মধ্যে ছিল জাতীয় পতাকা উত্তোলন বর্ণাঢ্য র‌্যালী, বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগীতা, নৃত্য প্রতিযোগীতা, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ, মেধা পুরস্কার ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠন। বক্তারা বলেন, মুছে যাক গ্লানি, গুচে যাক জরা, অগ্নিম্লানে শুচি হোক ধরা। বাংলা নববর্ষ বাঙালির সংস্কৃতির প্রাণের উৎসব। পুরাতন বছরের পাওয়া না পাওয়ার হিসেব চুকিয়ে নতুন আলোর প্রত্যশায় সুন্দর ও স্বার্থক আগামীর স্বপ্নযাত্রায় আমরা হই মহাযাত্রী এই প্রত্যাশায়। উক্ত অনুষ্ঠানে ১৩ জন গরীব মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের পুরস্কার বিতরণ করা হয়। পুরস্কার বিরতণ করেন ১২০ জনকে। বৃত্তির নগদ অর্থ প্রদান করেন ৫ জনকে।

Print Friendly, PDF & Email