চাকুরী জাতীয়করণের দাবীতে সীতাকুন্ডে শিক্ষক সমিতির মানববন্ধন

গতকাল ১৫ এপ্রিল ’১৮ বেলা ১২টায় শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোট কেন্দ্রিয় কমিটি ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বেসরকারী শিক্ষকদের চাকুরী জাতীয়করণের দাবীতে সীতাকুন্ডে এক বিক্ষোভ সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি সীতাকুন্ড উপজেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ মোঃ নাসির উদ্দিনের সভাপতিত্বে মানববন্ধন পূর্ব বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি চট্টগ্রাম আঞ্চলিক শাখার সচিব কমল কান্তি ভৌমিক, বিশেষ অতিথি ছিলেন আঞ্চলিক শাখার অতিরিক্ত সচিব মোঃ সাইফুল ইসলাম চৌধুরী, সহ-সচিব মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, শিক্ষকদের মাঝে সকল সরকারী বেসরকারী বৈষম্য দূরীকরণের লক্ষ্যে বেসরকারী শিক্ষকদের বৈশাখী ভাতা, বার্ষিক প্রবৃদ্ধি ঘোষণা এবং সর্বোপরি চাকুরী জাতীয়করনের ঘোষণা দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে শিক্ষক নেতৃবৃন্দের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন সীতাকুন্ড উপজেলা শাখার সচিব আবদুর রহমান, মো: লোকমান মিয়া, মো: আবু বকর, শেখ মো:আজম, মো: জামাল উদ্দীন, মাওলানা নুরুল কবির, প্রবীর কুমার নাথ, মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া, মাওলানা নুরুন্নবী, মো:মহিউদ্দিন, শামসুল আলম, আলী নেওয়াজ, নাজনীন হক চৌধুরী প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ বলেন দেশের শিক্ষা ব্যবস্থার শতকরা ৯০ ভাগ শিক্ষা দিয়ে থাকেন বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তথা বেসরকারী শিক্ষকবৃন্দ। কিন্তু ১০% শিক্ষা দেওয়া সরকারী শিক্ষকবৃন্দ সকল সরকারী সুযোগ-সুবিধা ভোগ করছেন। সমযোগ্যতা এবং একই কারিক্যুলামে শিক্ষাদান করা সরকারী ও বেসরকারীদের শিক্ষকদের মধ্যে যে বিশাল ব্যবধান তা অনতিবিলম্বে দূর করতে হলে অবিলম্বে সকল বেসরকারী শিক্ষকদের চাকুরী জাতীয়করণের ঘোষণা দেওয়া প্রয়োজন । অন্যথায় শিক্ষক সমাজ দাবী আদায়ের জন্য যে কোন কঠোর কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবে। আন্দোলনের অংশ হিসাবে আগামী ১৮ই এপ্রিল বিকেল ৩টায় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানববন্ধনে শিক্ষকদের উপস্থিত হওয়ার আহ্বান জানান। আগামী ২০ জুলাইয়ের মধ্যে জাতীয়করণের ঘোষনা না আসলে ২৩শে জুলাই থেকে অবিরাম কর্মবিরতি এবং ২৯ জুলাই ঢাকায় মহাসমাবেশে যোগদানের জন্য সকল শিক্ষকবৃন্দকে আহ্বান জানান

Print Friendly, PDF & Email