ছয়‌মাসের কারাদণ্ডের আদেশের দিনই মুক্ত রাজপাল

২০১০ সালে ‘আতা পাতা লাপাতা’ নামের একটি চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য দিল্লির ব্যবসায়ী মুরলী প্রজেক্টের মালিক এমজি আগরওয়ালের থেকে ২০১০ সালে ৫ কোটি রুপি ঋণ নিয়েছিলেন বলিউডের কৌতুক অভিনেতা রাজপাল যাদব এবং তার স্ত্রী রাধা।

ছবি মুক্তির পরও টাকা ফেরত না দেওয়ায় এই অভিনেতা, তার স্ত্রী এবং কোম্পানির বিরুদ্ধে দিল্লির এক আদালতে মামলা দায়ের করেন ঐ ব্যবসায়ী।
সেই মামলার শুনানিতেই গত ১৪এপ্রিল আদালত রাজপাল যাদব এবং তার স্ত্রী রাধা যাদব সহ তাদের কোম্পানিকে দোষী সাব্যস্ত করেছিল। মামলার রায়ে রাজপালকে ছয়‌মাসের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন আদালত। সোমবারই আদালত এই সাজা ঘোষণা করে।

ইন্ডিয়া টুডে সূত্রে জানা গেছে, সাতটি আলাদা মামলায় এই অভিনেতাকে দোষী সাব্যস্ত করে সোমবার সাজা ঘোষণা করে নতুন দিল্লির কারকারডোমা আদালত। তাকে ছয়মাসের কারাদণ্ড এবং প্রতিটি মামলার জন্য ১.৬০ কোটি রুপি করে জরিমানা করা হয়েছে। তবে সোমবারই জামিনে মুক্ত হন রাজপাল।

গণমাধ্যমকে তিনি বলেছেন, আদালতের বিচারকে আমি সম্মান করি, ‍উচ্চ আদালতে আবেদন জানাবো। ২০১৩ সালে এই মামলাতেই রাজপালের আইনজীবী আদালতে মিথ্যে নথিপত্র পেশ করায় ১০ দিনের কারাদণ্ড হয়েছিল রাজপালের। চারদিন তিনি জেলে কাটিয়েওছিলেন।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের শাহজাহানপুরে জন্ম বলিউডের এই অভিনেতার। দিল্লির ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামা থেকে অভিনয় শিক্ষাশেষে ১৯৯৭ সালে মুম্বাই আসেন। একেবারে ছোটোখাটো চরিত্র দিয়ে বলিউডে অভিনয় শুরু করেন। রামগোপাল ভার্মার ‘জঙ্গল’ ছবিতে বিশেষ পরিচিতি পান।

‘হাঙ্গামা’,‘চুপ চুপ কে’, ‘গরম মশালা’, ‘ফির হেরাফেরি’,‘ঢোল’সহ শতাধিক হিন্দি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন । ‘ম্যায় মাধুরী দীক্ষিত বাননা চাহতি হুঁ’ তে তার অভিনয় বিশেষ প্রশংসা লাভ করে ।

Print Friendly, PDF & Email