কাশেম নূর ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মাসব্যাপী অনুষ্ঠিত সংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন কুরআন নাযিলের কারণেই এ মাস হাজার মাসের চেয়ে শ্রেষ্ট—আবদুচ ছালাম

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম বলেছেন, রমজান মাস কুরআন নাযিলের মাস। এ মাসে মহাগ্রন্থ আল কোরআন নাযিল হওয়ার কারণেই শ্রেষ্ট মাসে পরিণত হয়েছে। ঠিক তেমনি মানবজাতিও কোরআনের সংস্পর্শ নিলে সেই মানবও শ্রেষ্ট মানবে পরিণত হবে। তিনি বলেন, রমজানে রোজা পালন করলে হবে যদি আমরা হালালকে অর্জন করতে না পারি আর হারামকে বর্জন করতে না পারি। আমাদেরকে হালাল-হারামের বিধান মেনে চলতে হবে। দুনিয়াবী জীবনে কোরআনের পরিপূর্ণ অনুসরণ করতে হবে। অন্যতায় আমাদের রোজা কোন কাজে আসবে না।
তিনি আরো বলেন, কাশেম নূর ফাউন্ডেশন পুরো একমাস ব্যাপী হিফজুল কুরআন, কেরাত, নাত মোস্তফা ও ইসলামী সংগিত প্রতিযোগিতা এবং ইফতারের আয়োজন করেছে তা সত্যি একটি মহৎ কাজ। এ মহৎকাজে যারা সহযোগিতা করেছে তারা আল্লাহর নিকট অধিক মর্যাদাবান হবে। তিনি কাশেম নূর ফাউন্ডেশনের উত্তোরত্তর সফলতা কামনা করেন।
অদ্য ১২ জুন শুক্রবার বিকাল ৫টায় চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ কমপ্লেক্স এ কাশেম নূর ফাউন্ডেশন আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ কমপ্লেক্স পরিচালনা কমিটির সভাপতি নুরুল আমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন কাশেম নূর ফাউন্ডেশনের পরিচালক ও চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা কল্যাণ সমিতির সভাপতি হাসান মাহমুদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বায়তুশ শরফ আদর্শ কামিল মাদরাসার অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. মাওলানা সাইয়্যেদ মুহাম্মদ আবু নোমান, আবাসিক এলাকা কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোটেক জিয়া উদ্দিন আহম্মদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ কমপ্লেক্স পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন। বক্তব্য রাখেন মাওলানা অলিউল্লাহ ও আবদুল মান্নান প্রমুখ।
প্রধান বক্তা হাসান মাহমুদ চৌধুরী বলেন, মুধু মাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্যই কাশেম নূর ফাউন্ডেশন গঠন করা হয়েছে। যা কার্যক্রম পরিচালনা হচ্ছে সবই মানবতার সেবার জন্য। আমরা মানবতার সেবায় নিয়োজিত থাকতে চায়। এ সেবা কার্যক্রমে যারা সহযোগিতা করে যাচ্ছে তাদের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

Print Friendly, PDF & Email