সাউদাম্পটনের জালে হাফ ডজন গোল ম্যানসিটির

লিভারপুলের পেছনে থেকে নিজেদের মাঠে খেলতে নামতে হয়েছিল সাউদাম্পটনের বিপক্ষে। ১৬ নম্বরে থাকা দলটির কাছে হোঁচট খাওয়ার সম্ভাবনা ছিল খুবিই কম। জিতলেই শীর্ষে ফিরে আসবে সিটি। সেটা মাথায় রেখেই খেলতে নেমেছিল পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা। কিন্তু জয়টা যে এত বড় ব্যবধানে আসবে সেটা খোদ সিমি ম্যানেজার গার্দিওলাও ধারণা করতে পারেননি। সাউদাম্পটনকে ৬-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েই শীর্ষে ফিরলো ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

সিটির জয়ে জোড়া গোল করেন রাহিম স্টার্লিং। সার্জিও আগুয়েরো পেলেন ইপিএলে তার দেড়শোতম গোলের দেখা। এই জয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ১১ ম্যাচে সিটির পয়েন্ট ২৯। আগেরদিন আর্সেনালের সঙ্গে ড্র করে শীর্ষে উঠলেও আবার লিভারপুলকে নেমে যেতে হলো তিন নম্বরে। কারণ অন্য ম্যাচে চেলসি জিতেছে ক্রিস্টাল প্যালেসের সঙ্গে। লিভারপুলের সঙ্গে পয়েন্ট সমান হলেও গোল ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে মাওরিসিও সারির শিষ্যরা।

রোববার ইত্তহাদে ম্যানসিটি শুরুতে এগিয়ে গিয়েছিল আত্মঘাতি গোলের সুবাধে। সাউদাম্পটনের ওয়েসলি হয়েডট আত্মঘাতি গোলটি করেন। সেই যে সূচনা ঘটলো, নিয়মিত বিরতিতে গোল হয়েই গেছে। ১২ মিনিটে সার্জিও আগুয়েরো, ১৮ মিনিটে ডেভিদ সিলভা, রাহিম স্টার্লিংয়ের জোড়া গোল প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময়ে এবং ৬৭ মিনিটে। জার্মান তারকা লেরয় সান সিটির হয়ে ষষ্ঠ গোলটি করেন খেলা শেষ হওয়ার কয়েক মুহূর্ত আগে, অতিরিক্ত সময়ে। ৩০ মিনিটে সাউদাম্পটনের হয়ে ড্যানি ইংস পেনাল্টি থেকে একটি গোল শোধ করেন।

ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে খেলতে নেমে ৩-১ গোলে জয় দিয়ে লিগ টেবিলে দুই নম্বরে উঠে এসেছে চেলসি। চেলসির হয়ে জোড়া গোল করলেন আলভারো মোরাতা। খেলার ৩২ ও ৬৫ মিনিটে গোল দুটি করেন তিনি। চেলসির হয়ে তৃতীয় গোলটি করলেন স্প্যানিশ ফুটবলার পেদ্রো, ম্যাচের ৭০ মিনিটে। ৫৩ মিনিটে ক্রিস্টাল প্যালেসের অ্যান্ড্রস টাউন্সেড একটি গোল শোধ করেন।

Print Friendly, PDF & Email