Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

সত্যিকারের গেম চেঞ্জার মহেন্দ্র সিং ধোনি

সেই ছক্কার কথা মনে আছে? ২০১১ সালে মুম্বাইর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে ৪৮তম ওভারের দ্বিতীয় বলে নুয়ান কুলাসেকারাকে ছক্কা মেরে ভারতকে বিশ্বকাপ জিতিয়ে দিয়েছিলেন ধোনি! ‘দ্য ফিনিশার’ নামটা তার আগে থেকেই মূলত ধোনির সঙ্গে জুড়ে দেয়া হয়েছিল। কিন্তু ২০১১ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতকে ওই ছক্কায় মাহেন্দ্রক্ষণ এনে দেয়া ধোনিই বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে সত্যিকারার্থেই দ্য রিয়েলে গেম চেঞ্জার।

গেম চেঞ্জার? হারতে বসা ম্যাচ একাই জিতিয়ে দেয়ার ক্ষমতা রাখেন যিনি, তাকেই তো বলে সত্যিকারের গেম চেঞ্জার। ভারতের অভিজ্ঞ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মহেন্দ্র সিং ধোনি সত্যিকারই রিয়েল গেম চেঞ্জারের প্রতিভু।

শুধু কি ব্যাটিংয়ে? নিজের দেশকে দুটি বিশ্বকাপ জিতিয়েছেন যিনি, তার নামের পাশে আর বিশেষণ প্রয়োজন হয় না। ভারতের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলির মাথার ওপর ধোনির অভিজ্ঞতার চেয়ে বড় ছাতা আর কিছুই হতে পারে না।

টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি ছেড়েছেন আগেই। কারণ তো একটাই, সব মনোযোগ ওয়ানডে বিশ্বকাপে দেয়া। বয়সটা ৩৮ ছুঁইছুঁই। সন্দেহ নেই, এটাই হতে যাচ্ছে ধোনির শেষ বিশ্বকাপ। এই বিশ্বকাপে তাই নিজের সবটুকুই নিংড়ে দেবেন ঠান্ডা মাথার এই ক্রিকেট জাদুকর।

ধোনিকে নিয়ে আসলে আলাদা করে কিছু বলার দরকার নেই। ওয়ানডেতে তার রেকর্ডই দেখুন না! এখন পর্যন্ত ৩৪১টি ওয়ানডে খেলেছেন, দশ হাজারের উপর রান (১০৫০০)। ৫০.৭২ গড়টা তো রীতিমত ঈর্ষা করার মতো। ১০টি সেঞ্চুরির সঙ্গে আছে ৭১টি হাফসেঞ্চুরি।

উইকেটের পেছনে এখনও তিনি যেন ২০ বছরের তরুণ। ৩১৪টি ক্যাচের সঙ্গে আছে ১২০টি স্ট্যাম্পিংয়ের রেকর্ড। তার সঙ্গে তুলনায় আসার মতো আসলে কেউ নেই ভারতীয় দলে।

একজন ধোনি দাঁড়িয়ে গেলে ভারতের জন্য বিশ্বকাপ নিয়ে আর ভাবতে হবে না। নিজের শেষ বিশ্বকাপকে রাঙিয়ে দিতে যা দরকার, তার চেয়ে বেশিই নিশ্চয়ই করবেন সাবেক ক্যাপ্টেন কুল।

Print Friendly, PDF & Email