Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ক্যাস্টর অয়েল চুলের জন্য কতটা উপকারী

চুলের যত্নে ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহার করে থাকেন অনেকেই। ক্যাস্টর অয়েল কি সত্যিই উপকারী? এই তেলটি মূলত প্রোটিন, মিনারেল আর ভিটামিন ই সমৃদ্ধ। তাই ক্যাস্টর অয়েলের নিয়মিত ব্যবহারে চুল হয়ে উঠতে পারে ঝলমলে, উজ্জ্বল ও স্বাস্থ্যে ভরপুর। দেখে নিন কোন পাঁচটি কারণে ক্যাস্টর অয়েলকে আজই আপনার চুল পরিচর্যার সঙ্গী করে নেওয়া উচিত।

চুলের আর্দ্রতা বজায় রাখে
ক্যাস্টর অয়েলে পর্যাপ্ত ময়শ্চারাইজার রয়েছে। এই তেল স্ক্যাল্প এবং চুলের গভীরে ঢুকে গিয়ে আর্দ্রতা বজায় রাখে এবং চুল ভিতর থেকে ঝলমলে, মসৃণ করে তোলে।

চুলের বৃদ্ধি ঘটায়
ক্যাস্টর অয়েলের এসেনশিয়াল ফ্যাটি অ্যাসিড আর ওমেগা-৬ মাথার তালুতে রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে তোলে এবং চুলের বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে। চুলের ফলিকল কোনো কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হলে তা মেরামত করার জন্যও ক্যাস্টর অয়েল খুবই উপযুক্ত।

অকালপক্বতা রোধ করে
চুল অসময়ে পেকে যাওয়ার সমস্যা এখন ঘরে ঘরে। প্রথম পাকা চুলটি চোখে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে ক্যাস্টর অয়েল মাখতে শুরু করুন। চুলের পিগমেন্ট অর্থাৎ কালো রং ধরে রাখতে সাহায্য করে ক্যাস্টর অয়েল।

রুক্ষতা দূর করে
ক্যাস্টর অয়েলের সঙ্গে মিশিয়ে নিন জোজোবা, নারিকেল তেল বা অলিভ অয়েল। কয়েক ফোঁটা হাতের তালুতে নিয়ে ঘষে চুলে লাগিয়ে নিলেই নিমেষে উধাও হবে উড়ো চুলের সমস্যা।

ঘন ভ্রু আর চোখের পাপড়ি পেতে
শুধু চুলই নয়, ভুরু আর চোখের পল্লব ঘন করতেও ক্যাস্টর অয়েল অপরিহার্য। ভুরু বা চোখের পাতায় ফাঁকা থাকলে প্রতিদিন রাতে ক্যাস্টর অয়েল লাগিয়ে নিন। কিছুদিনের মধ্যেই ঘন হয়ে উঠবে ভুরু আর চোখের পাপড়ি।

Print Friendly, PDF & Email