Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

পাঁচজনকে অব্যাহতি দিয়ে চার্জশিট গ্রহণ আসামি ১৬

 

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) গ্রহণ করেছে আদালত। অভিযোগপত্র গ্রহণ করে আগামী ২০ জুন অভিযোগ (চার্জ) গঠনের জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদ আলোচিত এই মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন এবং অভিযোগ গঠনের জন্য এই দিন নির্ধারণ করেন। ২৯ মে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআইর পরিদর্শক শাহ আলম ১৬ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরে ৩০ মে ফেনীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাকির হোসেন মামলাটি পরবর্তী কার্যক্রমের জন্য নথি বিচারিক আদালত নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করেন। গতকাল বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অভিযুক্ত আসামি মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রুহুল আমিনসহ গ্রেফতার ২১ আসামিকে প্রিজন ভ্যানে করে আদালতে আনা হয়। অভিযোগপত্রে নাম না থাকায় মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে পাঁচ আসামিকে। এরা হলেন নূর হোসেন, আলাউদ্দিন, কেফায়েত উল্লাহ জনি, সাইদুল ও আরিফুল ইসলাম। এ সময় সাত আসামি জামিনের আবেদন করলে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বলেন, ‘মামলার চার্জশিট দাখিল এবং এর চলমান প্রক্রিয়ায় আমরা সন্তুষ্ট। তবে ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনকে গ্রেফতার করা হলে ভালো হতো।’ প্রসঙ্গত, নুসরাতকে যৌন হয়রানি করার অভিযোগে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলার বিরুদ্ধে সোনাগাজী মডেল থানায় নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। মামলাটি তুলে না নেওয়ায় ৬ এপ্রিল পরীক্ষার হল থেকে কৌশলে নুসরাতকে ডেকে পাশের ভবনের তিনতলার ছাদে নিয়ে সিরাজ-উদ-দৌলার সহযোগীরা তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেয়। পাঁচ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে ১০ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে মৃত্যুবরণ করে নুসরাত।

Print Friendly, PDF & Email