Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনে মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন-কে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা স্মৃতি পরিষদের সংবর্ধনা

জাতীয় নেতা শহীদ এ এইচ এম কামরুজ্জামানের সুযোগ্য সন্তান, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনে মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদায় অভিষিক্ত হওয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস স্মরণে ৭ জুন ২০১৯ খ্রি. সকালে রাজশাহী নগরীর উপশহরে মেয়র ভবনে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা স্মৃতি পরিষদের আয়োজেন এক সংবর্ধনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজশাহী মহানগর আওয়ামীলীগ, থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের বিপুল সংখ্যক নেতা কর্মী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা স্মৃতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা ও সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। সংবর্ধিত অতিথি জাতীয় চারনেতা এ এইচ এম কামরুজ্জামানের সুযোগ্য পুত্র রাসিক মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামানকে সম্মাননা ক্রেষ্ট ও অভিনন্দন সনদ প্রদান করে সম্মানিত করা হয়। ক্রেষ্ট ও সনদ হস্তান্তর করেন বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম। সংবর্ধিত অতিথি রাসিক মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান বলেন, আন্দোলন সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সৃষ্টিকারী জেলা চ্টগ্রাম। চট্টগ্রামবাসী তাকে সম্মানিত করায় তিনি চট্টগ্রামবাসীকে অভিনন্দন ও কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, তার পিতা শহীদ এ এইচ এম কামরুজ্জামানের জন্মভূমি রাজশাহীকে বাংলাদেশে একটি মডেল নগর হিসেবে গড়ার দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। জননেত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছা আগ্রহ ও আদর্শে রাজশাহী গড়ে উঠছে। জনাব লিটন আশা করেন, পরিকল্পিত নগরায়ন হলে বাংলাদেশের মর্যাদা বহুগুণ বেড়ে যাবে। তিনি বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা, জননেত্রী শেখ হাসিনার ক্ষুধা-দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার সংগ্রামে সকলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে কামাল উদ্দিন, খায়রুজ্জামান, মনিরুজ্জামান, খালেকুজ্জামান, মনির হোসেন, জামার উদ্দিন ও রাশেদ মাহমুদ পিয়াস সহ আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, কৃষক লীগ, আওয়ামী যুবলীগ, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। পরে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আপ্যায়ন করা হয় এবং একে অপরের সাথে কুশল বিনিময় হয়।

Print Friendly, PDF & Email