Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

স্বপ্ন জয়ের কৃতিত্ব পেলেন সেই তিনজন

এমন বিশ্বকাপ কি আগে কেউ দেখেছে কখনো? না দেখেনি। নির্ধারিত ৫০ ওভারে টাইয়ের পর সুপার ওভারের টাইয়ের ঘটনা প্রথমবারের মতো দেখলো বিশ্ব। আর যাতে স্বপ্ন রঙিন হলো ইংল্যান্ডে। কপাল পুড়লো নিউজিল্যান্ডের।

মূলত সুপার ওভারে টাইপের পর আইসিসির বেধে দেওয়া নিয়ম অনুযায়ী বাউন্ডারি সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয় স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে। এমন এক ম্যাচ জিতে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ জেতার পর স্বভাবতই আনন্দে আত্মহারা ইংল্যান্ড দল।

তবু যথাসম্ভব নিজের আবেগ সংবরণ করে পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আসেন ইংলিশ অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান, কথা বলেন ম্যাচের ব্যাপারে।

বলেন, ‘এটা আমাদের চার বছরের জার্নি। আমরা এ জার্নিতে নিজেদের উন্নতি করেছি, বিশেষ করে শেষের দুই বছরে। শেষতক শিরোপা জিতেছি মানে আমরা বিশ্বসেরা। মাঠে খেলোয়াড়রা নিজেদের শান্ত রেখেছে, নিজেদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েছে। প্রয়োজনের সময়ে নিজেদের সেরা চরিত্রটা দেখিয়েছে।’

‘শিরোপাটা উঁচিয়ে তুলতে পেরে সত্যিই অনেক আনন্দিত। যেহেতু স্টোকস তখনও তেমন ক্লান্ত ছিল না, তাই বাটলারের সঙ্গে তাকেই পাঠানো হয়েছিল। এ দুজনের সঙ্গে কৃতিত্ব দেবো জোফরা আর্চারকেও। সে যত খেলছে ততোই উন্নতি করছে। এ মুহূর্তে পুরো বিশ্ব যেনো আমাদের হাতে।’

Print Friendly, PDF & Email