Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

বিপন্ন মানবতার পাশে জেলা প্রশাসক এবং এক মানবতার কর্মী….! আগুনে পুড়ে মরা পরিবার কে অর্থ সহায়তা”

মুঃবাবুলহোসেন(বাবলা),চট্টগ্রাম.৩০জুলাই

গত ২৩জুলাই নগরীর বন্দর থানাধীন বাকের আলী ফকিরের টেক মধ্যম হালিশহর পুলিশ ফাঁড়ির পিছনে রেলবিটের পাশে ভাড়াটিয়া বসত ঘরে আগুনে দগ্ধ হয়ে মর্মান্তিক মৃত্যু বরন কারী পরিবারের সদস্য মোঃ সরওয়ার (কালু) কে চট্টগ্রাম জেলা প্রসাশক ইলিয়াছ সাহেব চল্লিশ হাজার (৪০,০০০) টাকা নগদে সাহার্য্য করে সত্যিই বিপন্ন মানবতার পাশে দাড়াঁলেন।

এই কাজটি যিনি সার্বিক ভাবে সহায়তা দিয়ে ডিসি মহোদয় কে দৃষ্টি আকৃষ্ট করতে এবং মানবতার পথ দেখিয়েছেন তিনি হচ্ছেন ক্যাব মহাননর সদস্য ও বন্দর থানা কমিটির সভাপতি,নগর উত্তর কমিটির যুগ্ন সম্পাদক মোঃ আলমগীর বাদশাহ্।
যার বদলৌতে একটি সর্বহারা পরিবার ডিসি মহোদয় থেকে প্রাপ্ত আর্থিক সহায়তা দিয়ে হয়তো নিজের কিছু চাহিদা পূরণ সহ স্বজন হারার জ্বালা কিছুটা হলেও মেটাবেন। যেন সব হারিয়ে ফিরে পাবার তৃপ্ত পেলাম পুড়া কপালে।আলমগীর বাদশাহ’র এই মহান সাহার্য্য সূলভ এবং মানবতাবাদী কাজে সমাজের সর্বমহলে দারুণ উৎসাহ সৃষ্টি ও একজন জেলা প্রশাসক চাইলে যে, কিছু করতে পারেন তা ক্যাবের এই নেতা দেশ ও সমাজ চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে শিখেয়েছেন।
সম্প্রতি একই এলাকায় আরো একটি মহৎ কাজ করে আলমগীর সমাজে সবার সু-নজরে এসেছেন।গত সপ্তাহ ২/৩দিন আগে এক মা-ছেলেকে নিয়ে কলসিদীঘি রোডে বাইরে হাটার সময় হঠাৎ ছেলে ধরা গুজবে ঐ মহিলা(সালমা) কে বেদম প্রহার দিলে(গণপিঠুনী)বাদশা প্রথমে নিজে পরে মধ্যম হালিশহর ফাড়িঁর ইনচার্চ(এস.আই) আঃরহিমের সহায়তা একাই শতশত লোকের কাছ থেকে মহিলা উদ্ধার করে থানা আনেন।

পরে দেখা যাই ঐ মহিলা শিশু সন্তানটির প্রকৃত মা। ঐঘটনায় আলমগীর বাদশাহ দ্রুত ছুটে না গেলে হয়তো কলসিদিঘী এলাকায় একটি পরিবারের অপমৃত্যু হতে পারতো।যা থেকে এক মহানুভব ব্যক্তি দূত হিসেবে কাজ করে সবাই কে রক্ষা করলো।
বিষয়টি নিয়ে পুলিশের এস আই’র সাথে কথা হলে তিনি জানান, আসলে সমাজে এখনো ভালো লোক আছে,যারা অন্যর দুঃখ দেখলে সত্যি ঝাঁপিয়ে পড়ে বিপদগামী কে রক্ষা করে।বাদশাহ তাদের একজন ।

এলাকার বহুলোক আলমগীর বাদশাহ সৎ সাহসীকতার কাজ কে উচ্চ মনের পরিচয় দিচ্ছেন বলে প্রবীন মুরব্বীরা মন্তব্য জানিয়েছেন।
আসুন আমরা ও বিপন্ন মানবতার পাশে দাড়াঁয়।

Print Friendly, PDF & Email