Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে কাশ্মীরে মুসলমানদের দমন-পীড়নের প্রতিবাদে ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা ও ছাত্রসেনার মানববন্ধন

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে কাশ্মীরে মুসলমানদের দমন-পীড়নের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম উত্তর জেলা
ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা ও ছাত্রসেনার মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ মিছিলে অ্যাড. বখতিয়ার
কাশ্মীরিদের বিশেষ মর্যাদা ফিরিয়ে দিতে ও হত্যা-নির্যাতন
বন্ধে জাতিসংঘসহ বিশ্বনেতাদের হস্তক্ষেপ কামনা

আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত সমন্বয় কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার বলেন, ভারত সরকার কাশ্মীরি জনগণের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে। তারা ভারতের সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদের ৩৫ এ ধারায় কাশ্মীরকে দেওয়া বিশেষ মর্যাদা রদ করে আলাদা পতাকা, আইন তৈরির স্বাধীনতার মতো স্বায়ত্তশাসন কেড়ে নিয়েছে। বিশ্ববাসী জানতে পারছে না কাশ্মীরে কী ঘটছে। ভারতীয় সরকার সেখানে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করে জরুরী অবস্থা ঘোষণা করেছে, বিদ্যালয় ও কলেজ বন্ধ, পর্যটকদের কাশ্মীরত্যাগ বাধ্য করেছে, টেলিফোন-ইন্টারনেট সেবা বন্ধসহ সার্বিক যোগাযোগ বন্ধ, আঞ্চলিক নেতাদের গৃহবন্দী করে রেখেছে, জনপ্রতিনিধিদের অন্তরীণ করা হচ্ছে এবং প্রতিবাদী নাগরিকদের গুলি করে হত্যা করা হচ্ছে। এধরণের অবস্থা শুধু যুদ্ধকালে ঘটে থাকে। এসব ঘটনা অগণতান্ত্রিক ও মানবাধিকারের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। কাশ্মীরি জনগণের উপর ভারতের অন্যায্য হস্তক্ষেপের প্রতিবাদ করা ও নির্যাতিত কাশ্মীরিদের পাশে দাঁড়ানো জাতিসংঘসহ বিশ্বনেতাদের নৈতিক দায়িত্ব। ভারতের মতো একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে ও সংবিধান লঙ্ঘনের মধ্য দিয়ে জাতীয় অখ-তার নামে যা করা হচ্ছে, তা কোনভাবে মেনে নেয়া যায় না। তাদের মনে রাখা উচিত- জাতির সৃষ্টি গণমানুষ দ্বারা, ভূখ- দ্বারা নয়। শুধু মুসলমান হওয়ার অপরাধে ধর্মীয় বিদ্বেষে উগ্রবাদি শিবসেনাদের সন্তুষ্ট করতে গণমানুষের অধিকার কেড়ে নেয়ার ফল ভালো হবে না। অধিকার বঞ্চিত কাশ্মীরের সাধারণ জনগণ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের ন্যায় নিজেদের আত্মরক্ষার তাগিদে অস্ত্রহাতে ঝাঁপিয়ে পড়লে ভারত সরকারই দায়ি থাকবে। বর্তমান আধুনিক বিশ্বে নির্যাতন-নিপীড়ন করে অধিকার কেড়ে নিয়ে কাউকে দমিয়ে রাখা যায় না। তাই অবিলম্বে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা ফিরিয়ে দেয়ায় ভারতের জন্য মঙ্গল। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানের দেশ। আমাদের দেশের অধিকাংশ নাগরিক কাশ্মীরি মুসলমানদের উপর অন্যায়-অবিচারে বিক্ষুদ্ধ। সরকারে উচিত জনগণের মনের কথা বুঝা। তাই অবিলম্বে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশের অবস্থান পরিষ্কার করতে হবে। কাশ্মীরিদের বিশেষ মর্যাদা ফিরিয়ে দিতে ও হত্যা-নির্যাতন বন্ধে জাতিসংঘসহ বিশ্বনেতাদের হস্তক্ষেপের ব্যবস্থা নিতে হবে। কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা ফিরিয়ে দিতে ও মুসলমানদের উপর ভারতীয় প্রশাসনের হত্যা-নির্যাতনের প্রতিবাদে আজ ৯ আগস্ট শুক্রবার বাদে জুমা চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা ও ছাত্রসেনা চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আয়োজিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে প্রধান অতিথির বক্তব্য এডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতেয়ার এসব কথা বলেন। সংগঠনের সভাপতি মাওলানা ওবাইদুল মোস্তফা কদমরসূলীর সভাপতিত্ব এবং সাধারণ সম্পাদক মাওলানা এস.এম ইয়াসিন হোসাইন হায়দরীর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত সমন্বয় কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার। প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সচিব অধ্যাপক ড. সৈয়দ জালাল উদ্দিন আযহারী। ও বিক্ষোভ মিছিলে বক্তব্য রাখেন ইসলামী ফ্রন্ট নেতা মাওলানা তহিদুল আলম আলকাদেরী, মুহাম্মদ এনামুল হক ছিদ্দিকী, এস.এম জাহাঙ্গীর আলম, অধ্যাপক মুহাম্মদ জামাল উদ্দিন, মুফতি আল্লামা আবুল হাসান মুহাম্মদ ওমাইর রজভী, মুহাম্মদ আকতার হোসেন, মাওলানা রফিকুল ইসলাম রেজভী, আলহাজ¦ কামাল পাশা চৌধুরী, যুবসেনা নেতা মুহাম্মদ ইছমাইল হোসেন, মুহাম্মদ আজিম উদ্দিন আহমেদ জনি, মুহাম্মদ আলমগীর হোসেন, আমান উল্লাহ আমান, আবুল ফয়েজ, ফরিদুল আলম, মুহাম্মদ তারেক, নাছির উদ্দিন রুবেল ছাত্রসেনা নেতা মুহাম্মদ মফিজুর রহমান, কে এম আজাদ রানা, মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল রোমান, মনির আহমদ, মিনহাজ উদ্দিন সিদ্দিক, আবদুল্লাহ আল ফারুক, জাহেদ আলম, নওশাদ হোসাইন, হামিদুল ইসলাম, কাজী কায়েস উদ্দিন প্রমুখ।

Print Friendly, PDF & Email