Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের স্মরণালোচনা


জাতীয় চারনেতার আত্মত্যাগ দেশের
ইতিহাসে চির অম্লান হয়ে থাকবে

চট্টগ্রাম সাহিত্য পাঠচক্রের উদ্যোগে জেল হত্যা দিবস তথা জাতীয় চারনেতার শহীদ দিবস পালন উপলক্ষে এক স্মরণ আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠান গত ৪ নভেম্বর সন্ধ্যা ৭টায় নগরীর কদম মোবারক এম.ওয়াই উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি বাবুল কান্তি দাশ এতে সভাপতিত্ব করেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা ফজল আহমদ। প্রধান আলোচক ছিলেন লেখক মুক্তিযোদ্ধা কালাম চৌধুরী। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আসিফ ইকবালের পরিচালনায় এতে বিশেষ আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা জাসদের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ভানুরঞ্জন চক্রবর্তী, ছড়াকার মোদাচ্ছের আলী, শিক্ষক বিজয় শংকর চৌধুরী, গীতিকার মোঃ লিপটন, কবি সজল দাশ, লেখক নাছির হোসাইন জীবন, মোঃ ফিরোজ, আবৃত্তি করেন সোমা মুৎসদ্দী, শাহীন, ফেরদৌসী, শবনম ফেরদৌসী। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নারীনেত্রী সৈয়দা শাহানা আরা বেগম, হানিফ চৌধরী, জনি বড়ুয়া, নিলয় দে প্রমুখ। দোয়া ও মোনাজাত করেন মাওলানা কে.এইচ.এম.তারেক। সভায় বক্তারা বলেন পাকিস্তানের পেতœাতারা সেদিন বঙ্গবন্ধু স্বপরিবারে হত্যা ক্রান্ত হননি। তারা বঙ্গবন্ধুর মুল কান্ডারী জাতীয় চার নেতাকেও ১৯৭৫ সালে কারাগারের অন্ধ প্রকোষ্টে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। যা পৃথিবীর রাজনৈতিক ইতিহাসে একটি বরবর্তম ও জগন্য হত্যাকান্ড। এমনকি এ হত্যার বিচার প্রক্রিয়াও তৎকালীন খুনি জিয়ার সরকার অবরুদ্ধ করে রেখেছিল। সভায় বক্তারা জাতীয় চারনেতা হত্যার সাথে জড়িত সকল ষড়যন্ত্রকারী ও কুশিলবদের বিচার করার জোর দাবী জানান। তাছাড়া জাতীয় চারনেতার ইতিহাসকে প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য রাষ্ট্রীয়ভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ নানান স্থাপনার জোর দাবী জানান। এ ছাড়াও বর্তমানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযানকে সফল করার জন্য সকল শ্রেণীপেশার মানুষককে ঐক্যবদ্ধ ভুমিকা রাখার আহবান জানান। সভার শুরুতে জাতীয় চারনেতা স্মরণে দোয়া ও মুনাজাত করেন মাওলানা কে.এইচ.এম.তারেক।

Print Friendly, PDF & Email