Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ব্যবসা-বাণিজ্যের মূলধারায় নারী উদ্যোক্তাদের সম্পৃক্ত করলে দেশের উন্নয়ন ঃড. জামাল

তাসলিমা আক্তার নিশা/হোসেন বাবলাঃ৫জুলাই

নারী উদ্যোক্তাদেরকে দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে না পারলে সামগ্রীক উন্নয়ন সম্ভব নয়। গত ০৩ জুলাই বিকেল মিনিটে চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর উদ্যোগে সিডব্লিওসিসিআই এর কোভিড-১৯ হেল্পডেস্ক এ প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজ এ ঋণ গ্রহণে আবেদনকারী নারী উদ্যোক্তা ও দেশের বিভিন্ন জেলার উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্টদের সহিত ঋণ গ্রহন সংক্রান্ত ভার্চুয়াল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর চেয়ারম্যান ড. জামালউদিন আহমেদ এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ব্যাংকগুলোর দায়িত্ব নারী উদ্যোক্তাদেরকে ব্যবসা-বাণিজ্যের মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে প্রয়োজনীয় ঋণ সহযোগিতা করা। দেশের মোট জনগোষ্ঠীর অর্ধেক হচ্ছে নারী। নারীদেরকে দেশের অর্থনীতির মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে পারলে জিডিপিতে সুফল বয়ে আনবে। মহামারীর এই সংকটকালে হতাশ না হয়ে ধৈর্য্যসহকারে পরিস্থিতির মোকাবেলা করার পরামর্শ দেন। তিনি প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে বর্তমানে সকলে যে সুফল ভোগ করছেন তা উল্লেখ করে বলেন, বিদ্যুতের উন্নয়ন ও ডিজিটাল বাংলাদেশ না হলে আজকের এই মহামারীর দুঃসময়ে ঘরে বসে আমরা বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তের নারী উদ্যোক্তাদেরকে সম্পৃক্ত করে ভার্চুয়াল আলোচনায় অংশগ্রহন করতে পারতাম না। পাশাপাশি তিনি ভার্চুয়াল আলোচনায় অংশগ্রহনকারী বিভিন্ন জেলার জনতা ব্যাংকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরকে নারী উদ্যোক্তাদেরকে ঋণ গ্রহনে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার নির্দেশ দেন এবং ক্ষতিগ্রস্ত নারী উদ্যোক্তাদেরকে উজ্জ্বীবিত করতে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিতে বলেন।

চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট এফবিসিসিআই এর পরিচালক মনোয়ারা হাকিম আলীর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর সাবেক প্রেসিডেন্ট ও লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল জেলা ৩১৫বি-ফোর এর সদ্য বিদায়ী গর্ভনর এবং বাংলাদেশ মহিলা সমিতি চট্টগ্রাম এর সভানেত্রী লায়ন কামরুন মালেক চীনের বিখ্যাত উদ্যোক্তা জ্যাক মা এর উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, সামগ্রীক পরিস্থিতিতে আমাদেরকে মানষিক শক্তি সঞ্চয় করে টিকে থাকতে হবে।
জনতা ব্যাংক এর চেয়ারম্যান ড. জামালউদ্দিন আহমেদ-কে দেশের নারী উদ্যোক্তাদের ঋণ সহযোগিতার অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, পুরুষের তুলনায় নারী উদ্যোক্তারা দায়িত্বশীল ও সচেতন যার ফলে দেশে নারী উদ্যোক্তাদের মাঝে ঋণ খেলাপী নাই বললেই চলে।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ফান্ড-প্রিজম প্রজেক্ট এর টিম লিডার আলী সাবেত বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের নারী উদ্যোক্তাদের সামগ্রীক অবস্থা অনুযায়ী বাংলাদেশ ব্যাংক এর নীতিমালার আওতায় ঋণ পাওয়া খুবই দুরহ ব্যপার। তিনি ঋণ প্রদানের নীতিমালা সহজীকরন অথবা উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এবং এসএমই ফাউন্ডেশন এর মাধ্যমে ক্রেডিট হোল-সেলিং করে নারী উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রদানে নীতিমালা গ্রহনের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক-কে প্রস্তাব করেন। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর

প্রেসিডেন্ট এবং এফবিসিসিআই এর প্রাক্তন ফার্ষ্ট ভাইস-প্রেসিডেন্ট ও পরিচালক মনোয়ারা হাকিম আলী দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে এবং মহামারী করোনার এই বৈশ্বিক দুঃসময়ে নারী উদ্যোক্তাসহ সিএমএসএমই খাতে উদ্যোক্তাদের জন্য ২০ হাজার কোটি টাকার বিশেষ তহবিল ঘোষণা করায় ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন নারী উদ্যোক্তা ও ব্যাংক এবং অর্থলগ্নীকারী প্রতিষ্ঠান এর সমন্বয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই তহবিলকে কাজে লাগিয়ে আমরা নিজেদের মনোবল না হারিয়ে আবার পুনরুজ্জীবিত হব এবং সমন্বিতভাবে দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করতে ভূমিকা রাখবো। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর উদ্যোগে ইতিমধ্যে স্থাপিত হেল্পডেস্ক -এর মাধ্যমে ঋণ সুবিধা গ্রহনের জন্য আবেদনকারী নারী উদ্যোক্তা ও দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের নারী উদ্যোক্তাদের প্রতিনিধি উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্টদের এই ভার্চুয়াল
অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করার জন্য প্রধান অতিথি জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর চেয়ারম্যান ড. জামালউদ্দিন আহমেদ, বিশেষ অতিথি চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি সাবেক প্রেসিডেন্ট ও লায়ন্স ক্লাব ইন্টারন্যাশনাল জেলা ৩১৫বি-ফোর এর সদ্য বিদায়ী গর্ভনর এবং বাংলাদেশ মহিলা সমিতি চট্টগ্রাম এর সভানেত্রী লায়ন কামরুন মালেক ও ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ফান্ড-প্রিজম প্রজেক্ট এর টিম লিডার আলী সাবেতকে কৃতজ্ঞতা জানান এবং অংশগ্রহনকারীদেরকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি সিনিয়র ভাইস-প্রেসিডেন্ট আবিদা মোস্তফা। তিনি বলেন, নারীদের ব্যবসা চালিয়ে নিতে প্রতিনিয়ত প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হতে হয়। করোনা মহামারীর কারণে স্বল্প পুঁজির অনেক নারী উদ্যোক্তা তাদের পুঁজি হারিয়ে নিঃস্ব হতে চলেছে। তাদের মনোবল ধরে রাখতে এবং উজ্জীবিত করতে চাহিদা মাফিক দ্রুত ঋণের আওতায় আনা অত্যন্ত জরুরী। সিলেট উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট স্বর্ণলতা রায় উদ্যোক্তারা ব্যাংক ঋণ চাইতে গিয়ে নানান ভোগান্তির শিকার হচ্ছে উল্লেখ করে বলেন ব্যংকগুলো যদি নারী উদ্যোক্তাদেরকে সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন প্রয়োজনে উইম্যান চেম্বারের পক্ষ থেকে আমরা উদ্যোক্তাদের পক্ষে গ্যারেন্টি প্রদান করবো। কিশোরগঞ্জ উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট ফাতেমা জোহরা আক্তার বলেন ব্যাংকগুলো পুরোনো ঋণ গ্রহীতাদের গৃহীত ঋণের ২০% (বিশ শতাংশ) ঋণ দিতে আগ্রহী। সেক্ষেত্রেও বাংলাদেশ ব্যাংকের নিয়ম উপেক্ষা করে জামানত প্রদান করতে হবে। নতুনদের ক্ষেত্রে তারা অনাগ্রহ প্রকাশ করছেন। রংপুর উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট আনোয়ারা ফেরদৌসী পলি নারী উদ্যোক্তাদেরকে স্বল্প পরিমানে হলেও ঋণ সুবিধা দেওয়ার জন্য জনতা ব্যাংকের কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানান। বরিশাল উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট বিলকিস আহমেদ লিলি দেশের দক্ষিানাঞ্চলের নারী উদ্যোক্তারা ঋণের জন্য ব্যাংকের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বিরূপ অভিজ্ঞতার বর্ণনা করে বলেন বেশীর ভাগ ব্যাংকই বলছে, তাদের কাছে এখনো বাংলাদেশ ব্যাংকের ঋণ সংক্রান্ত কোন নির্দেশনা পৌঁছায়নি। তিনি হতাশা ব্যক্ত করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত তহবিলের ঋণ আদৌ কি নারী উদ্যোক্তারা পাবেন? না ঘোষণার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থেকে যাবে।

বান্দরবান উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট লালসানি লুসাই বলেন পাহাড়ী নারীরা অনেক পরিশ্রমী ও সহজ-সরল। কিন্তু তারা ব্যাংকগুলোর কাছে সরাসরি যেতে এখনো অভ্যস্ত হয়ে উঠেনি। তাই ব্যাংকগুলো যদি ঋণ প্রদান প্রক্রিয়ায় উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিকে সম্পৃক্ত করেন তাহলে তাদের ঋণ পেতে অনেকটা সহজ হবে। সুনামগঞ্জ উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রেসিডেন্ট হোসনা হুদা ডেইরি ও পোল্ট্রি ফার্মের ঋণ গ্রহন প্রক্রিয়া সম্পর্কে জানতে চান। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রাক্তন পরিচালক শারমীন হোসাইন মহামারীর এই দুঃসময়ে টিকে থাকার জন্য ব্যবসা পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ব্যাংকের সহযোগিতা এবং পাশাপাশি মার্কেট লিংকেজের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করেন। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রাক্তন সিনিয়র ভাইস-প্রেসিডেন্ট ও পরিচালক গুলশানা আলী ভবিষ্যতের ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনার ক্ষেত্রে অভিজ্ঞ কর্মচারীদের ধরে রাখার জন্য মহামারী কালে তাদের বেতন-ভাতা প্রদানের জন্য ঋণ সুবিধার প্রস্তাব করেন। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রাক্তন সিনিয়র ভাইস-প্রেসিডেন্ট রুহী মোস্তফা গুলশানা আলী’র প্রস্তাবের সমর্থন দিয়ে বলেন, আমরা যদি ঋণ সহযোগিতা পাই তবে আমাদের অভিজ্ঞ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ধরে রাখতে পারবো। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রাক্তন ভাইস-প্রেসিডেন্ট জেসমিন আক্তার বলেন মৌসুমী ফল চাষীদের ঋণ প্রদান প্রক্রিয়া সহজ হলে এই সেক্টরের মাঠ-পর্যায়ের চাষীরা উপকৃত হবেন। এছাড়াও চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর পরিচালক রেবেকা নাসরিন কিন্ডার-গার্টেন স্কুলের শিক্ষকদের বেতন-ভাতা প্রদানের ক্ষেত্রে ঋণ সুবিধা প্রদানের অনুরোধ জানান। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রাক্তন ভাইস-প্রেসিডেন্ট আইভি হাসান ফ্যাশন ও বুটিকস্ সেক্টরের উদ্যোক্তাদের ঋণ সহযোগিতা প্রদানের অনুরোধ করে বলেন ব্যবসার মূল সময়ে মহামারীর ফলে এই সেক্টরের উদ্যোক্তারা সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর প্রাক্তন পরিচালক শায়লা ইসলাম ফ্লোরা বলেন ফ্যাশন সেক্টরের মত বিউটি পার্লার সেক্টর সামগ্রীকভাবে অত্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত এবং এই সেক্টরের নারী উদ্যোক্তা ও কর্মচারীরা অত্যন্ত মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। তাদের দ্রুত ঋণ সহযোগিতা প্রয়োজন।

এছাড়াও চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর পরিচালক নূজহাত নূয়েরী কৃষ্টি ও মোস্তারী মোর্শেদ স্মৃতি অনলাইন নারী উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রাপ্তিতে প্রয়োজনীয় নীতিমালা প্রস্তুতের উপর গুরুত্বারোপ করেন। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর ভাইস-প্রেসিডেন্ট রেখা আলম চৌধুরী তার কারখানার শ্রমিক-কর্মচারীদের মানবেতর অবস্থার কথা উল্লেখ করে বলেন যত দ্রুত ঋণ পাওয়া যাবে তাতে ব্যবসা এবং ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত লোকজনদের মনোবল ধরে রাখা সম্ভব হবে। চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এর

সিনিয়র ভাইস-প্রেসিডেন্ট ডা. মুনাল মাহবুব সমাপনী বক্তব্যে বলেন সরকারের নীতিমালা, ব্যাংক ও উদ্যোক্তাদের মাঝে সমন্বয় অত্যন্ত জরুরী। যতদিন পর্যন্ত আমরা নীতিমালা ব্যাংক এবং উদ্যোক্তা এই তিনের মাঝে সমন্বয় করতে পারবো না ততদিন পর্যন্ত নারী উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রাপ্তি সহজ হবেনা। তিনি আরো বলেন, ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে মাঠ-পর্যায়ের সমস্যাগুলো ব্যাংকাররা যদি নীতি-নির্ধারনী পর্যায়ে তুলে ধরেন তাহলে নীতিমালা প্রস্তুতে সরকার অনেক বেশী সচেতন হবেন।

অনুষ্ঠানের শেষ অংশে নারী উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন প্রশ্নের দেন জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর মহা-ব্যবস্থাপক মাশিউল বারী। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চিটাগাং উইম্যান চেম্বার অব কমর্সা এন্ড ইন্ডাস্ট্রি এর পরিচালক সুলতানা নূরজাহান রোজী, জিনাত আরা নিপুণ, লুৎমিলা ফরিদ ও প্রাক্তন পরিচালক নূর আক্তার জাহান, শাহিদা কামাল, সদস্য চৌধুরী জুবায়রা সাকী জিপসী ও দৌলতুন্নেসা ।

Print Friendly, PDF & Email