Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

প্রদীপের জামিন শুনানী ২০ সেপ্টেম্বর-দুদকের মামলায় কারাগারে এখন…! দুদকের মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত...স্ত্রী চুমকি কারণ পলাতক

হোসেন বাবলাঃচট্টগ্রাম আদালত থেকে১৪সেপ্টেম্বর

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলায় টেকনাফ থানার সাবেক ওসি (সাময়িক বরখাস্ত) প্রদীপ কুমার দাশকে গ্রেফতার দেখানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।একই সময় আসামি পক্ষ প্রদীপ কুমার দাশের জামিন চাইলে আদালত ২০ সেপ্টেম্বর জামিন শুনানির তারিখ ধার্য করেছেন।১৪ সেপ্টেম্বর সোমবার মহানগর সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত এ আদেশ দেন।

দুদকের আইনজীবী মাহমুদুল হক মাহমুদ বলেন, প্রদীপ কুমার দাশকে দুদকের মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। আসামিপক্ষ একই মামলায় জামিন চাইলে আদালত ২০ সেপ্টেম্বর জামিন শুনানির জন্য তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

এর আগে দুপুর সোয়া ১টায় কড়া নিরাপত্তায় প্রদীপ কুমার দাশকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে আদালতে আনা হয়। প্রদীপ কুমার দাশের উপস্থিতিতে দুদকের মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানোর ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

গত ২৩ আগস্ট প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকি কারণের বিরুদ্ধে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন দুদকের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দীন। এ মামলায় ২৭ আগস্ট মহানগর সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালতে প্রদীপ কুমার দাশকে গ্রেফতার দেখানোর আবেদন জমা দেওয়া হয়।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকী কারণের বিরুদ্ধে দুদকে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ১৩ লাখ ১৩ হাজার ১৭৫ টাকার সম্পদ অর্জনের তথ্য গোপন ও ঘুষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার সম্পদ অর্জন করেছেন।

২০১৮ সালে প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকী কারণের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তদন্ত শুরু করে দুদক।২০১৯ সালের ৯ এপ্রিল তাদের দুইজনকে সাত কার্য দিবসের মধ্যে সম্পদ বিবরণী দাখিলের নির্দেশ দেয় দুদক। ১২ মে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়-২ এ তারা পৃথক সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন।

সংবাদের ছবি- জাহাঙ্গীর আলম,চট্টগ্রাম।

Print Friendly, PDF & Email