Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

গাজীপুরে মুক্তিযোদ্ধার সংবাদ সম্মেলন ॥ শ্রীপুর থানা- পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ

SAMSUNG CAMERA PICTURES

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি ॥
১১ অক্টোবর রবিবার সকালে গাজীপুর জেলা রিপোর্টার্স ক্লাব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ সামসুদ্দিন খন্দকার বলেন, ১। রোজিনা আক্তার, ২। মোসাঃ রিনা, ৩। মোঃ সাগর, ৪। বিল্লাল হোসেন, ৫। মোঃ মাসুম, সর্ব সাং- শ্রীপুর কাপাসিয়া রোড (খাসপাড়া) শ্রীপুর, গাজীপুর গংরা তার বসত বাড়ী ও তাকে হত্যার চেষ্টা চালাচ্ছে। তিনি বলেন, গত ২৩ সেপ্টেম্বর সকাল ১১ ঘটিকায় তার জমি ক্রয়ের কথা বলে কাগজপত্র দেখার জন্য রোজিনা আক্তার তার বাড়িতে ডেকে নেয়। এসময় তার ভাতিজা আতাউর রহমান, মোঃ হারুনুর রশিদ ও ভাগিনা শাহ আলম তার সাথে ছিলেন। রোজিনার বাড়িতে যাওয়ার পর রোজিনার স্বামী বাড়িতে না থাকায় ১০/১৫ মিনিট দেরি হবে বলে জানালে মুক্তিযোদ্ধার ভাগিনা ও ভাতিজারা পাশের চায়ের দোকানে চলে গেলে সেই সুযোগে রোজিনা মুক্তিযোদ্ধাকে চা-বিস্কুট ও পান খেতে দেয়। মুক্তিযোদ্ধা তার দেওয়া পান খেয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। ১৫ মিনিট পরে ভাগিনা ও ভাতিজারা রোজিনার বাড়িতে ফিরে আসলে দেখতে পায় মুক্তিযোদ্ধা অচেতন হয়ে পড়ে আছে। তাকে উদ্ধার করে দ্রুত শ্রীপুর হাসপাতালে নিলে, সেখান থেকে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়। পরদিন তার হাসপাতালে জ্ঞান ফিরে। তার হাসপাতাল রিপোর্টে বলা হয়। তাকে পানের সাথে বিষ মিশিয়ে অজ্ঞান করা হয়েছিল। সেই সুযোগে চক্রটি তার হাতের টিপ সই নেন বলে পরে জানতে পারে। প্রকাশ থাকে যে, তার বিয়াই মুক্তিযোদ্ধা এস.এম. মফিজুদ্দিন আহমেদ মাস্টার এর মাধ্যমে জানতে পারে রোজিনা তাকে অজ্ঞান করে তার হাতের টিপ সই রেখেছে এবং সেই কাগজ বলে ৩১ লাখ টাকা দাবী করে মুক্তিযোদ্ধার নিকট। এবিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় অভিযোগ করলে প্রথমে পুলিশ তাহাকে সহযোগিতার কথা বললেও পরক্ষনে পুলিশ বিবাদীদের পক্ষ নেন বলে তিনি বলেন। শ্রীপুর থানার এসআই অংকুর ও এসআই ফয়সাল বিবাদীদের সাথে আতাত করেছে বলেও তিনি লিখিত বক্তব্যে জানান। তার জমি উদ্ধারে ও জানমাল হেফাজতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রী ও গাজীপুর পুলিশ সুপার এর কাছে আকুল আবেদন জানান।

Print Friendly, PDF & Email