Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

ইঞ্জিনিয়ার কে এম সুফিয়ানের অবদান চিরঅম্লান হয়ে থাকবেঃ ড. শাহাদাৎ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের স্বরণ সভায় নগর বিএনপির সভাপতি ডাৎশাহাদাৎ হোসেন

হোসেন বাবলাঃ২৪অক্টোবর(চট্টগ্রাম)

মহানগর বিএনপির সভাপতি ডাঃ শাহাদাত হোসেন বলেছেন, এ্যাব সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার কাজী মোঃ সুফিয়ান ছিলেন একজন সৎ, বিনয়ী ও আপাদমস্তক ভদ্র মানুষ। তিনি সবার কাছে সাচ্ছা জাতীয়তাবাদী ও দল অন্তপ্রাণ ব্যক্তি হিসিবে পরিচিত ছিলেন। পেশাজীবী সংগঠনগুলোকে শক্তিশালী করতে তার ভুমিকা ছিল অপরিসীম। তিনি প্রতিটি প্রয়োজনের মুহূর্তে অসম সাহসে রুখে দাঁড়িয়েছেন অন্যায়ের বিরুদ্ধে।
চট্টগ্রামে বিএনপি ও পেশাজীবী সমাজের কাছে তিনি ছিলেন একজন অভিভাবকের মতো। আমাদের দীর্ঘদিনের বিশ্বস্ত সহকর্মী কে এম সুফিয়ানের ইন্তেকালের দুঃসংবাদ আমার কাছে অকল্পনীয় ও বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো ছিল। এ বেদনা ও শোকের কোন পরিমাপ নেই। তার অবদান ইতিহাসে চিরঅম্লান হয়ে থাকবে।

তিনি শনিবার (২৪ অক্টোবর) দুপুরে লাভ লেইনস্থ মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন হলে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ চট্টগ্রাম শাখার উদ্যোগে এ্যাব চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার কে এম সুফিয়ানের স্বরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

প্রধান বক্তার বক্তব্যে নগর বিএনপির সাঃ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, ইঞ্জিনিয়ার কে এম সুফিয়ান আজীবন সাহসী ভূমিকা পালন করে গেছেন। আন্দোলন সংগ্রামে তিনি সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ফখরুদ্দীন মইনুদ্দীনের অবৈধ সরকার বিরোধী আন্দোলনের একজন বলিষ্ঠ কণ্ঠ হিসেবে তিনি আমাদের অনেক স্মৃতির সঙ্গে জড়িত রয়েছেন। বর্তমান এই ক্রান্তিকালে তাঁকে যখন খুব দরকার, সে সময় তিনি চিরতরে চলে গেলেন। তার মৃত্যুতে শুধু বিএনপিই নয়, বরং চট্টগ্রামবাসী এক সাহসী সন্তানকে হারিয়েছে। তার অবদান বিএনপি আজীবন শ্বরণে রাখবে। তিনি ইঞ্জিনিয়ার কে এম সুফিয়ানের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান বলেন, ইঞ্জিনিয়ার কে এম সুফিয়ান স্বৈরাচারবিরোধী নব্বইয়ের গণঅভ্যুত্থানের একজন অগ্রবর্তী সংগঠক ছিলেন। বর্তমানে দেশে যখন গণতন্ত্র পুনঃরুদ্ধারের আন্দোলন চলছে ঠিক তখন তার আকস্মিক মৃত্যু সংবাদ জন্য ছিল দুঃসহ বেদনার। তার মৃত্যুতে যে শূণ্যতার সৃষ্টি হয়েছে তা সহজে পূরণ হবেনা। তার কর্মগুনেই তিনি আমাদের মাঝে বেচে থাকবেন।

সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক সাংবাদিক জাহিদুল করিম কচির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সাথী উদয় কুসুম বড়ুয়া, পেশাজীবী পরিষদের সদস্য সচিব ডাঃ খুরশিদ জামিল, মুক্তিযোদ্ধা মনিরুল ইসলাম ইউচুপ, ইঞ্জি. বেলায়েত হোসেন, সাংবাদিক নেতা মোঃ শাহনওয়াজ।

এ্যাব চট্টগ্রাম জেলার সদস্য সচিব ইঞ্জি. সেলিম মোঃ জানে আলমের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সদস্য মন্জুর উদ্দীন চৌধুরী, মরহুমের সহধর্মিণী শিরিন শারমিন, নগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কামরুল ইসলাম, নারী নেত্রী ও সাবেক কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম মনি, জেলী চৌধুরী, শ্রমিক নেতা কামাল পাশা, এড:ছলিম উল্লাহ, ইঞ্জি. তৌহিদুল আনোয়ার, মরহুমের ভাই কাজী মোঃ ইউচুপ, বিএনপি নেতা ইদ্রিস আলী, জাকির হোসেন, আখী সুলতানা, ইঞ্জি.খান মো. আমিনুর রহমান, ইঞ্জি. মোঃ রাসেদ, ইঞ্জি. কামরুজ্জামান, ইঞ্জি. মোঃ উচমান, এড:জালাল উদ্দীন পারভেজ, সৈয়দ মোস্তফা আলম মাসুম, মাঈনুদ্দীন মাহমুদ, জহিরুল ইসলাম, আজমত আলী বাহাদুর, মোঃ জিয়াউদ্দীন, রফিকুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর আলম, ইঞ্জি. জমির উদ্দীন নাহিদ, ইঞ্জি. লাভলু, পাশা আবু সুফিয়ান, কাজী এমদাদুল হক আলমগীর প্রমূখ।

3 Attachments

Print Friendly, PDF & Email