Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes

লালদিয়ার চরের পাশ দিয়ে নতুন গৃহে যাচ্ছে হাজার রোহিঙ্গা ,সে সময়ে গৃহহীন হচ্ছে ১০হাজার বাসিন্দা ! “সময় আর মাত্র ২০দিন ”

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ১৭ ফেব্রুয়ারী

পতেঙ্গা(৪১নং ওয়ার্ডস্থ)লালদিয়ার চরে এখনো প্রায় ৫৭ একর জায়গা অবৈধ দখলের মাধ্যমে বসবাস করছে প্রায় ১০ হাজার মানুষ। গত ডিসেম্বরে পাঠানো হাইকোর্টের আদেশ অনুযায়ী দুই মাসের ঐ অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে ৯ মার্চের মধ্যে রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা রয়েছে। হাইকোর্টের সেই আদেশ মানতে বন্দর কর্তৃপক্ষের হাতে সময় আছে আর মাত্র ২০ দিন। এই সময়ের মধ্যে ওই অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে হাইকোর্টে রিপোর্ট জমা দিতে হবে বন্দর কর্তৃপক্ষকে।

বন্দর সূত্র থেকে জানা যায়, লালদিয়ার চরের ১২ ও ১৩ নম্বর ব্লকে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের প্রায় ৭২ একর জায়গা অবৈধ দখলে ছিল। এর মধ্যে ২০১৯ সালের ২২ এবং ২৩ জুলাই দুইদিনব্যাপী উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে প্রায় ১৫ একর জায়গা উদ্ধার করা হয়েছিল। বর্তমানে সেখানে আরো প্রায় ৫৭ একর জায়গা অবৈধ দখলে রয়েছে। যেখানে প্রায় ১০ হাজার মানুষ বসবাস করছে। দুই মাসের ঐ জায়গার অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করে হাইকোর্টকে জানাতে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল।

এই উচ্ছেদের বিষয়ে গত সোমবার চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সাথে জেলা প্রশাসন, সিটি কর্পোরেশন, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ, বিদ্যুৎ, ওয়াসা, ফায়ার সার্ভিস, র্যা ব ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সাথে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে হাইকোর্টের দেয়া সময়ের মধ্যে কীভাবে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা হবে সে বিষয়ে আলোচনা হয়।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মো: ওমর ফারুক প্রতিবেদক কে জানান, বন্দর কর্তৃপক্ষ লালদিয়ার চরের অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদের প্রস্তুতি নিচ্ছে। এরই মধ্যে সংশ্লিষ্ট সকলের সাথে আলোচনাও করা হয়েছে। ঐ স্থানের থাকা বিদ্যুৎ, পানি ও গ্যাস সংযোগ বন্ধ করার প্রক্রিয়া চলছে। এছাড়া গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে অবৈধ দখলদারদের সরে যাওয়ার আহবান জানানো হয়েছে। এর পরও যারা বন্দরের জায়গায় অবৈধ দখলে থাকবে তাদের উচ্ছেদ করা হবে।

যে সময়ে লালদিয়ার চরের পাশ দিয়ে নতুন গৃহে যাচ্ছে রোহিঙ্গা হাজার হাজার পরিবার,সে সময়ে গৃহহীন হচ্ছে লালদিয়ার চরের শিশু, মহিলাসহ দশহাজারের অধিক অসহায় মানুষ।এটাই ওদের আজীবনের ট্রাজেডি।

এই সময়ে গত ২/৩দিন ধরে স্থায়ী বাসিন্দার আত্মীয়-স্বজনরা হাতে বিভিন্ন প্লেকার্ড-ফ্যাস্টুন,ব্যানার লিখে প্রতিবাদ মুখর হচ্ছেন উচ্ছেদ প্রতিরোধে। তাদের দাবি কি উচ্চ মহলের কানে পৌছাবে বা পৌছাতে দিবে জনপ্রতিনিরা ? আর সরকারের মহল থেকে কোন রূপ দিক নির্দেশনা না পেলেও হাইকোর্ট উচ্ছেদ অগ্রগতি জানতে এবং দখলদারদের সরাতে আর মাত্র ২০ দিন সময় দিয়েছেন বলে ভুক্তভোগিরা জানিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email